সবাই শুধু সুযোগ নিতে চাই, ভালবাসার দাম কেউ দিতে চাই না: শ্রাবন্তী

0
1230

একবছর আগে বাগদান ও ঘরােয়া বিয়ের আয়ােজনের পর গত বছরের জুলাইয়ে বিয়ের রেজিস্ট্রি হয় কলকাতার জনপ্রিয় নায়িকা শ্রাবন্তী চ্যাটার্জি মুম্বাইয়ের সুপার মডেল কৃষাণের। এই বছর তাদের আনুষ্ঠানিক আয়ােজন করার কথা ছিল। কিন্তু তাদের এই সংসারটি টিকে নেই এখন আর। বিয়ে ও বিচ্ছেদের জন্য প্রায় এক বছর চলচ্চিত্র থেকে দূরে ছিলেন শ্রাবন্তী। সম্প্রতি শ্রাবন্তী কথা বলেছেন ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমে। সেখানে তিনি জানিয়েছেন তাদের বিবাহ বিচ্ছেদের কথা।

বিচ্ছেদ পরবর্তী জীবন এবং হতাশা নিয়ে প্রশ্ন করা হলে শ্রাবন্তী বলেন, ‘আমি এখন ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে মাথা ঘামাচ্ছি না। কাজ আর ছেলের পড়াশােনা, এই নিয়ে ব্যস্ত। ঝিনুকের ক্লাস এইট হলাে। ওর স্কুলে যেতে অসুবিধা হবে বলে বেহালা থেকে বাইপাসের ধারে বহুতল দালানে চলে এসেছি। আর হতাশ হয়ে নিজের ক্ষতি করতে পারব না। কারণ আমার ছেলে, বাবা-মা সবসময় আমায় আগলে রাখে।

মাঝেমাঝে ভাবি এত ভালােবেসেও আমি ভালােবাসা পেলাম না। সবাই শুধু সুযােগ নিতে চায়। ভালােবাসার মূল্য কেউ দিতে চায়। তারপর ভাবি বাইরের লােকে যাই বলুক, আমি তাে জানি কারাে সঙ্গে কেন সংসার করতে পারিনি। বাইরের লােক কী বলল, তা নিয়ে আর ভাবি না।’

বিচ্ছেদের পরবর্তী কষ্ট ও হতাশা নিয়ে শ্রাবন্তী আরাে বলেন, ‘আমি খুব আবেগ প্রবণ। সংসার করতে ভালােবাসি। কিন্তু এখন মনে হয়, শুধু স্বামী থাকলেই সংসার হবে- এমন নয়। বাবা-মা, ছেলেকে নিয়েও সংসার হয়। প্রতিটা মেয়েই চায় সংসার করতে। কিন্তু আমার কপালে যা লেখা ছিল তাই হয়েছে। ভবিষ্যৎ কী। রকম হবে জানি না। তবে আমি আগের থেকে পরিণত হয়েছি। এখন কাজেও অনেক বেশি মন দিতে পারছি। মাঝে এক বছর কাজে অতটা মন দেইনি।’

কার সিদ্ধান্তে দ্বিতীয়বারের বিচ্ছেদের পথ মাড়ালেন শ্রাবন্তী, এমন প্রশ্নের জবাবে শ্রাবন্তী বলেন, ‘দুজনে মিলেই সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’ কৃষাণের বিরুদ্ধে কোনাে অভিযােগও নেই শ্রাবন্তীর। প্রাক্তন স্বামীকে শুভকামনা জানিয়ে শ্রাবন্তী বলেন, ‘আমি চাই, আমার সঙ্গে না হােক, কিন্তু সে যেন ভালাে থাকে।’

শ্রাবন্তী-কৃষাণের পরিচয় হয় দেড় বছর আগে একটি বিজ্ঞাপনের কাজের সময়। এরপরেই ভালােলাগা থেকে প্রণয় এবং পরিণয়ের সিদ্ধান্ত। শ্রাবন্তীর জীবনে কৃষাণ প্রথম নন। এর আগে শ্রাবন্তীর বিয়ে হয়েছিল চলচ্চিত্র নির্মা তা রাজীব চক্রবর্তীর সঙ্গে। শ্রাবন্তী-রাজীবের ঘরে জন্ম নেয় ঝিনুক নামের এক পুত্র সন্তান। কিন্তু তাদের সে সংসার টেকেনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here