একটি ধরতে গিয়ে ধরা পড়লো ১২টি নতুন মোটরসাইকেল!

0
632

বগুড়ার পুলিশ গাইবান্ধা থেকে দুই ট্রাক ভর্তি ১২টি চোরাই মোটর সাইকেলসহ দুই জনকে গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের পর তাদের রিমান্ড চেয়ে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।
বগুড়া জেলা পুলিশের সহযোগিতা নিয়ে শাজাহানপুর থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার নাকাইহাট এলাকার মৃত জালাল সরকারে ছেলে আব্দুল মান্নান (৪৫)। একই জেলার সাঘাটা উপজেলার পূর্ব শিমুলতাইর এলাকার মিঠু মিয়ার ছেলে রাজু মিয়াকে (৩৫) গ্রেফতার করে।

সোমবার দুপুরে বগুড়া পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভূঞা প্রেস বিফ্রিং করে এই তথ্য জানান। উপস্থিত সাংবাদিকদের তিনি জানান, কিছু দিন আগে বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলার বনানী বাজার থেকে একটি মোটরসাইকেল চুরি হয়। পুলিশ মোটরসাইকেলটি উদ্ধারের জন্য অনুসন্ধান শুরু করে সংবাদ পায় চুরি যাওয়া মোটরসাইকেল গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ থানার নাকাইহাট এলাকার রাখা হয়েছে

এমন সংবাদের ভিত্তিতে সোমবার গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ থানার নাকাইহাট এলাকার আব্দুল মান্নানের বাড়ি থেকে একটি কালো লাল রংয়ের ডিসকভার ১২৫ সিসি ও একটি লাল রংয়ের ১২৫ সিসি বাজাজ প্লাটিনা চোরাই মোটরসাইকেল উদ্ধার করে। পরে মান্নাকে জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে আরো কিছু মোটরসাইকেলের তথ্য দেয়। সে অনুযায়ী গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার পূর্ব শিমুলতাইর এলাকার মিঠু মিয়ার ছেলে রাজু মিয়া বাড়িতে অভিযান চালায় পুলিশ। সেখানে একটি নীল কাল রংয়ের ডিসকভার ১২৫ সিসি চোরাই মোটরসাইকেল পাওয়া যায়।

আবার রাজু মিয়ার দেয়া তথ্য মোতাবেক সাঘাটা থানায় কচুয়া বাজার এলাকার শিহাব উদ্দিনের গ্যারেজে অভিযান পরিচালনা করে সাতটি চোরাই মোটরসাইকেল উদ্ধার হয়। ওই সময় আন্তঃ জেলা মোটরসাইকেল চোর সিন্ডিকেটের সদস্য শিহাব পালিয়ে যায়।

এছাড়া সাঘাটা থানার বাংলা বাজার এলাকা হতে একটি ও সাঘাটা বাজার এলাকা হতে ০১ টি চোরাই মটরসাইকেল উদ্ধার হয়। পরে মোট ১২টি মোটরসাইকেল দুটি ট্রাকে ভরে বগুড়ায় নিয়ে আসা হয়।
পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভূঞা জানান, উদ্ধারকৃত ১২ টি মোটরসাইকেলের আনুমানিক মূল্য ১৮ লাখ টাকা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here